বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানকে পিছনে ফেলে কি শুভ সূচনার দেখা পাবে বাংলাদেশ !(bangladesh vs afghanistan)

বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান !! আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের আসরে আজ প্রথম বাংলাদেশের বিশ্বকাপের ম্যাচ শুরু । প্রথম ম্যাচেই বাংলাদেশ মুখোমুখি হবেন আফগানিস্তানের সাথে।  বাংলাদেশ সময় বেলা ১১ টায় ম্যাচটি ভারতের ধর্মশালা হিমাচল প্রদেশ থেকে ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে শুরু হবে এবং সাকিব আল হাসানের দলের সাথে মুখোমুখি হবেন শক্তিশালী  আফগানিস্তান। গত ২০১৫ বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল আফগানিস্তানের সাথে বাংলাদেশ এবং নিজেদের প্রথম ম্যাচে তারা জয়ী হয়েছিলেন। সর্বশেষ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে খেলতে নেমে ও বাংলাদেশ জয় লাভ করেছিলেন প্রথম ম্যাচে। তাইলে কি এইবারে প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ জয় লাভ করবে প্রশ্ন জাগে মনের অজান্তে।  এবার বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে জিতলে টানা দ্বিতীয় বিশ্বকাপের শুভ সূচনা করতে পারবে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল।  

বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান এই ম্যাচে ? নাকি তামিমের অভাব দলে রয়ে যাবে ? 

বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আফগানিস্তানের শুরুটা আবার এতটা ভাল নয়।  ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে অভিষেক ম্যাচে হেরেছিলেন আফগানিস্তান বাংলাদেশের বিপক্ষে হয়ে।  সর্বশেষ বিশ্বকাপে আফগানিস্তান খেলতে নামে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেখানেও তারা তাদের নিজেদের প্রথম ম্যাচে হেরেছিলেন। সেমিফাইনালে লক্ষ্য পূরণের পথে এগিয়ে যেতে প্রাথমিকভাবে নিজেদের প্রথম মেসে জয় দিতে চাইবেন সাকিব আল হাসানের দল। আর গতানুগতিকভাবে আফগানিস্তানে বিপক্ষে এশিয়া কাপে সর্বশেষ ম্যাচেও অনেক বড় (৮৯) ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ । 

প্রিয় পাঠক বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল কি পারবে আফগানিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপের শুভ সূচনা করতে ?

সেমিফাইনালের লক্ষ্য নিয়ে কি বিশ্বকাপ শুরু করছে বাংলাদেশ? আফগানিস্থান বনাম বাংলাদেশ !তাহলে কি সত্যিই সাকিবদের ঠিক রাখার কৌশল হিসেবে আগের ওই কথাটা বলেছিলেন চণ্ডিকা হাথুরুসিংহে ?

বিশ্বকাপ শুরুর আগে থেকে যদি প্রধান কোচ বলে দিতেন আমাদের স্বপ্নটা অনেক বড় সেই প্রত্যাশা সাকিব আল হাসানদের তো বয়ে বেড়াতে হতোই। কিন্তু এখন হাতে সময় এসেছে যে কোন অভিযান শুরুর আগে নিজেদের লক্ষ্যটা জেনে রাখা খুব জরুরী। তেমনি ভাবে বাংলাদেশের ও বিশ্বকাপের অভিযান শুরু হতে যাচ্ছে আজ নিজেদের প্রথম ম্যাচের মাধ্যমে আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলতে নামার সূচনা দিয়ে । সেই পথ চলা শুরুর আগে থেকেই প্রধান কোর্স সবাইকে সরাসরি জানিয়ে দিলেন নিজেদের লক্ষ্য। সেটি পূরণ করার মত যথেষ্ট ভালো একটি দলও আছে আমাদের ।

আদৌ কি তারা পূরণ করতে পারবে পাঠক আপনাদের মতামত কি? 

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের প্রাথমিক লক্ষ্য যদি সেমিফাইনাল হয় সেটা পূরণ করা সম্ভব হলে আর তো মাত্র দুটি ম্যাচ এবং তারপরে বড় স্বপ্নের হাতছানি। তাহলে হাথুরু নিজেই যে কিছুদিন আগে এক সংবাদ সম্মেলনের তার বড় স্বপ্ন দেখার কথা বলেছিলেন তাদের ঘুম থেকে জেগে উঠতে বলেছিলেন সত্যি কি সেটা পূরণ হতে যাচ্ছে ?গতকাল হিমাচল ক্রিকেট এসোসিয়েশন সম্মেলনে সাংবাদিকের প্রশ্নে মনে করিয়ে দেওয়ার পর বাংলাদেশের এই প্রধান কোচ বললেন আমার কাজ হচ্ছে শুধু খেলোয়াড়দের উপর থেকে চাপ কমানো।

তারপরে তিনি তাদের স্বপ্ন ও লক্ষ্য নিয়ে আরেকটি বিস্তারিত ব্যাখ্যা করছেন,মানুষ লক্ষ্য ঠিক করতে পারে উদ্দেশ্য থাকতেই পারে এবং অনেক বড় স্বপ্ন দেখতেই পারে এই শব্দগুলো ব্যবহার করেন বারবার। তেমনিভাবে আমরা নিজেরাও চেষ্টা করতেছি ভালো একটা বিশ্বকাপ খেলতে শুধু খেলা নয় ম্যাচ জেতারো চেষ্টা করছি। বর্তমানে এটিই মূল লক্ষ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে আমাদের সামনে, যেমন টি  বললাম আমাদের মূল লক্ষ্য সেমিফাইনালে যাওয়া সেটির লক্ষ্য হতে পারে সেটি স্বপ্ন পূরণ হতে পারে তাতে কিছু যায় আসে না !

তামিম সাকিবের দ্বন্দ্বে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান !

তামিম সাকিবের দ্বন্দ্বে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান !
তামিম সাকিবের দ্বন্দ্বে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান !

বাস্তবতা বলতে গেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট কিছুদিন ধরে যেসব ঝড় বয়ে যাচ্ছে ঠিক তখন বড় স্বপ্নের কথা বলাটাও তাদের কাছে বাড়াবাড়ি লাগতো। যাকে অধিনায়ক ভেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বিশ্বকাপের পরিকল্পনা করেছিল গত জুলাই মাসে  আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচের পরে হঠাৎ তামিম ইকবাল অবসর নেন। তখন থেকেই টানাপোড়ার সূচনা হয়। পরে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপে তামিম সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করেন। এবং সেই সাথে তিনি অধিনায়কত্ব থেকে সরে দাঁড়ান । এমনি জরুরি অবস্থায় বিশ্বকাপ পর্যন্ত বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেওয়ার দায়িত্ব সাকিব আল হাসানের কাঁধে পড়ে যায়।  তামিম নিউজিল্যান্ডের সিরিজ দিয়ে খেলায় ফিরলেও  ইনজুরির কারণে তাকে বিশ্বকাপ দলে রাখা হয়নি। অন্তত ম্যানেজমেন্টের আনুষ্ঠানিক ব্যাখ্যা এটাই প্রমাণ করে। 

তবে মূল কথা বা কারণ যে শুধু এটা নয় এর মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশে ক্রিকেটের এই মহাতারকা তামিম সাকিবের দ্বন্দ্ব জড়িত এটা এখন আর লুকানোর কিছু নেই।

বিতর্কে কে মাথায় রেখেই বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান খেলা!

বিতর্কে কে মাথায় রেখেই বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান খেলা!
বিতর্কে কে মাথায় রেখেই বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান খেলা!

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে ভারতে যেতে হয় এই বিতরকের মধ্য দিয়ে, সেই বিতর্ককে পিছনে ফেলে বাংলাদেশ দল কতটা সামনে অগ্রসর হয়েছে তারই পরীক্ষা হবে আজ আফগানিস্তান বনাম বাংলাদেশ এর প্রথম ম্যাচ দিয়ে । 

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অতীত বলে বড় টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ কতদূর যেতে পারে তা প্রথম ম্যাচে কিছুটা আচ করা যায়। তবে এটা ভালো শুরুর জয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশকে সেমিফাইনালে খেলার পথটা কিছুটা হলে এগিয়ে দিবে সেই সাথে অনেকটা দিবে আত্মবিশ্বাস। 

তাই সকলেই দীর্ঘ আগ্রহে বসে আছেন এবারের আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ বাংলাদেশের। বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তান এর খেলাটি উপভোগ করার জন্য। 

 

1 thought on “বাংলাদেশ বনাম আফগানিস্তানকে পিছনে ফেলে কি শুভ সূচনার দেখা পাবে বাংলাদেশ !(bangladesh vs afghanistan)”

Leave a Comment